খবর দার্জিলিং

শ্মশানেও লাইন!

নিজস্ব সংবাদদাতা, শিলিগুড়ি, ১৪ জানুয়ারি;

মৃত্যুর পরও মিলছে না ছাড় কখনো দু’ঘণ্টা কখনো তিন ঘন্টা কখনো বা সারাদিন মৃতদেহ আগলে বসে থাকতে হচ্ছে মৃতের আত্মীয়দের। শিলিগুড়ির কিরণ চন্দ্র শ্মশান ঘাটে এটি এখন রোজকার অনুশীলনে পরিণত হয়েছে। ফলে আত্মীয় স্বজন মারা গেলেও অনেকেই এখন এমুখো হতে চাইছেন না। যারা কাছাকাছি বলে আসছেন তারা ধরে নিয়ে আসছেন যতক্ষণ খুশি সময় লাগতে পারে।

কারণ এখন এখানে একটি মাত্র চুল্লি সক্রিয় রয়েছে অন্যটি রিজার্ভ হিসেবে রাখা হয়ে থাকে ফলে প্রতিদিন গড়ে 25 থেকে 30 টি মৃতদেহ পোড়াতে লাইন দিয়ে দীর্ঘ সময় লেগে যায় কখনো আগের দিনে লাইনে দাঁড়ালে পরের দিন সুযোগ মেলে বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পুরো নিগমের বিরোধী দলনেতা রঞ্জন সরকার। তিনি বলেন রাজ্যের প্রচুর টাকা বিভিন্ন খাতে এসে পড়ে রয়েছে যেগুলো ব্যাবহার করতে পারছে না বাম পরিচালিত শিলিগুড়ি পুরনিগম। মেয়র বেশিরভাগ দিনই শহরে থাকেন না ফলে এই সমস্ত সমস্যার কথা তার কানে যায় না। বোর্ড বদল না হলে এ দৃশ্য খুব একটা বদলানোর কোন সম্ভাবনা নেই।

যদিও পুরনিগমের ডেপুটি মেয়র রাম ভজন মাহাতো বলেন আপাতত দুটি চুল্লি রয়েছে যার একটি সক্রিয় থাকে। আরও একটি চুল্লি তৈরি করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে তবে বিভিন্ন কারণে তা পিছিয়েছে ফলে সমস্যা একটা হচ্ছে। এটি আলোচনা করে যত দ্রুত সম্ভব মিটিয়ে ফেলার চেষ্টা করা হচ্ছে।

Related posts

বাংলাদেশ সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়া টপকে অবৈধ ভাবে ফাঁসিদেওয়াতে ঢুকে পড়ল চার জন

Topnewstoday

আগামী ৪৮ থেকে ৭২ ঘন্টা দক্ষিণ ও উত্তরবঙ্গে স্বাভাবিকের থেকে নিচে তাপমাত্রা থাকবে

Topnewstoday

ধুপগুড়ি ধর্ষণ কান্ডে সরব সাধারণ নাগরিক থেকে সমস্ত রাজনৈতিক দল

Topnewstoday

Leave a Comment