কেন্দ্রে এবার অ-বিজেপি সরকার হবে, যার চাবিকাঠি থাকবে তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জির হাতে, শুভেন্দু

Zoom In Zoom Out Read Later Print

মুখ্যমন্ত্রীর "কন্যাশ্রী" প্রকল্পকে দেখে কেন্দ্র "বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও" প্রকল্প চালু করেছে।  তাও আবার মাত্র ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ। অথচ পশ্চিমবঙ্গ সরকার কন্যাশ্রী প্রকল্পে বছরে ৫ হাজার কোটি টাকা খরচ করছে । এতেই বোঝা যাচ্ছে সাফল্য কিভাবে এসেছে, শুভেন্দু

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদা, ১৯ মার্চ;

কেন্দ্রে এবার অ-বিজেপি সরকার হবে। যার চাবিকাঠি থাকবে তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জির হাতে। এর ভীত বপন হয়ে গিয়েছে ব্রিগেডের সভা থেকে। মঙ্গলবার দুপুরে দক্ষিণ মালদা লোকসভার নির্বাচনী প্রচারে এসে একথা বলেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী তথা মালদার তৃণমূল দলের পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারী। এদিন দক্ষিণ মালদার মানিকচক ব্লকের এনায়েতপুর ফুটবল খেলার মাঠে তৃণমূল প্রার্থী ডাঃ মোয়াজ্জেম হোসেনের সমর্থনে এই নির্বাচনী জনসভাটি অনুষ্ঠিত হয়। এদিনের নির্বাচনী জনসভায় মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারি ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মালদা জেলা পরিষদের সভাধিপতি গৌড় চন্দ্র মন্ডল, প্রাক্তন মন্ত্রী সাবিত্রী মিত্র, রতুয়া এবং মোথাবাড়ি কেন্দ্রে তৃণমূল বিধায়ক সমর মুখার্জি ও সাবিনা ইয়াসমিন প্রমুখ।

এদিন দুপুর তিনটে নাগাদ মালদার কালিয়াচকের কারবালার মাঠে দক্ষিণ মালদার তৃণমূল প্রার্থী ডাঃ মোয়াজ্জেম হোসেনের সমর্থনে একইভাবে আরেকটি নির্বাচনী জনসভা অনুষ্ঠিত হয় । সেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারি। এদিন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারি মানিকচক থেকে কাজ করতে যাওয়া উত্তরপ্রদেশে কার্পেট কারখানায় বিস্ফোরণ কাণ্ডে মৃত নয় জনের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।  প্রতিটি পরিবারের সদস্যরা এদিন মন্ত্রির সভা মঞ্চের এসে উপস্থিত হন। তাদের সঙ্গে কথা বলেন শুভেন্দুবাবু। রাজ্য সরকার যে ওই নয় মৃত শ্রমিকের পরিবারের পাশে রয়েছেন তা আরও একবার স্মরণ করিয়ে দেন মন্ত্রী।

উল্লেখ্য,  গত ২৩ ফেব্রুয়ারি উত্তর প্রদেশের ভাদোহী এলাকায় কার্পেট তৈরির কারখানায় বিস্ফোরণে মৃত্যু হয় মানিকচক ব্লকের এনায়েতপুর গ্রামের নয় জন শ্রমিকের । এই ঘটনার পর রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে মৃত ওই নয় শ্রমিকের পরিবারকে দুই লক্ষ টাকা করে আর্থিক ক্ষতিপূরণ সহ পরিবারের মহিলাদের সরকারি কাজের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। এদিন নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারি বলেন, এনায়েতপুরে একটি দুর্ঘটনা ঘটে গিয়েছে।  উত্তরপ্রদেশে এখানকার নয় জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি খুবই দুর্ভাগ্যজনক।  তবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি শ্রমিকদের পাশে রয়েছে।  তাদের সব রকম ভাবে সরকারি সাহায্যের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন,  শ্রমিক দরদী নেত্রী যদি কেউ হয়ে থাকেন সেটি হলেন মমতা ব্যানার্জি। তিনি যা উন্নয়ন করেছেন বিজেপি সেই উন্নয়নের স্বপ্ন কোনদিনই বাস্তবায়িত করতে পারবে না। ২০১৬ সালে নির্বাচনে মালদায় তৃণমূলের কিছুই ছিল না।  কিন্তু ২০১৮ সালে পঞ্চায়েত নির্বাচনে মানুষ তৃণমূলকে দুই হাত তুলে ভোট দিয়েছেন।  মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নকে দেখে মানুষ এগিয়ে এসেছে। তাই মালদা এখন তৃণমূলের গড় বলা যেতে পারে। এখানে মালদা জেলা পরিষদ, একাধিক পঞ্চায়েত সমিতি এবং গ্রাম পঞ্চায়েত তৃণমূলের দখলে রয়েছে। তাই আশা করা যাচ্ছে এবারের লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থীরা বিপুল ভোটে জয়ী হবে।

মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারি আরও বলেন,  মুখ্যমন্ত্রী "কন্যাশ্রী" প্রকল্পকে দেখে কেন্দ্র "বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও" প্রকল্প চালু করেছে।  তাও আবার মাত্র ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ।  একটা রাজ্যের জন্য তিন কোটি টাকাও জুটবে না । অথচ পশ্চিমবঙ্গ সরকার কন্যাশ্রী প্রকল্পে বছরে ৫ হাজার কোটি টাকা খরচ করছে । এতেই বোঝা যাচ্ছে সাফল্য কিভাবে এসেছে । যেভাবে রাজ্যের উন্নয়নে পরিবর্তন এসেছে । সেই ভাবেই এবারও অ-বিজেপি সরকার কেন্দ্রে এসে মুখ্যমন্ত্রীর হাত ধরেই উন্নয়ন করে দেখাবে।

See More

Latest Photos