নিশীথকে শীতলকুচিতে প্রচারে না যাওয়ার হুমকি আইসি'র, নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ জানাচ্ছে দল

Zoom In Zoom Out Read Later Print

কোচবিহারে বিজেপির প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক সাংবাদিক বৈঠকে জানান, জেলাশাসক তৃণমূলের কোচবিহার জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ শাসকদলের অঙ্গুলি হেলনে চলছেন। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করবে বিজেপি নেতৃত্ব। নির্বাচন কমিশন এদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে এবং সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনে দিকে না হাঁটলে বৃহত্তর আন্দোলনের পথে হাঁটবে বিজেপি



কিংশুক দত্ত, কোচবিহার, ৩১ মার্চ; 


বিজেপির প্রার্থী সহ দলের নেতা কর্মী ও সমর্থকদের প্রচার করতে প্রতিনিয়ত বাধা দিয়ে যাচ্ছে কোচবিহার জেলার বিভিন্ন থানার আইসি এবং ওসি-রা। অথচ  বিনা অনুমতিতে কোচবিহার ১নং তপশিলি লোকসভা কেন্দ্রের বিভিন্ন এলাকায় সভা করে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। এই কোচবিহার জেলার  নির্বাচনী আধিকারিক তথা জেলাশাসক এবং জেলার পুলিশ সুপার পক্ষপাতদুষ্ট  বিশেষ করে জেলাশাসক তৃণমূলের কোচবিহার জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ শাসকদলের অঙ্গুলি হেলনে চলছেন। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করবে বিজেপি নেতৃত্ব। নির্বাচন কমিশন এদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে এবং সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনে দিকে না হাঁটলে বৃহত্তর আন্দোলনের পথে হাঁটবে বিজেপি। রবিবার কোচবিহারে তাদের দলের জেলা সদর দপ্তরে এক সাংবাদিক বৈঠকে এ কথা জানালেন কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামানিক।

এদিন নিশীথ প্রামাণিক বলেন, এই মুহুর্তে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাদের তাবেদারী করছে এ রাজ্যের পুলিশ। এরা তৃণমূলের দলদাসে পরিণত হয়ে গেছে। এদের এখন শুধুই তৃণমূলের ঝান্ডা ধরা বাকি। তিনি বলেন, ভোটের পূর্বমুহূর্তে প্রার্থী প্রচারে যাবে এটাই স্বাভাবিক। আর বিজেপির প্রার্থী কোচবিহারের যেকোনো জায়গায় প্রচারে গেলে স্বতঃস্ফূর্তভাবে মানুষ বেড়িয়ে আসছেন এবং অভিনন্দন জানাচ্ছেন, আশীর্বাদ করছেন বিজেপি প্রার্থীকে। আর এটাই ভয়ের কারণ হয়ে গেছে তৃণমূল কংগ্রেসের। আর তাই তারা আক্রমণের পাশাপাশি পুলিশ প্রশাসনকে রীতিমতো ব্যবহার করে চলেছে। শনিবার নাটাবাড়ি এলাকায় তার প্রচার অভিযানে ব্যাপক হামলা চালিয়েছে তৃণমূল দুষ্কৃতীরা।  যার নেতৃত্বে ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের কোচবিহার জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষের ছেলে পঙ্কজ ঘোষ সহ তৃণমূল বিধায়ক ও ওই দলের বিভিন্ন ব্লক স্তরের নেতারা। বিজেপি কর্মী সমর্থকদের ব্যাপক মারধর-এর পাশাপাশি বিজেপির সংখ্যালঘু সেল এর রাজ্য সভাপতি আলী হোসেনকে মেরে তার পা ভেঙে দেওয়া হয়েছে বলে এদিন জানান তিনি। এই মর্মে তুফানগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বিজেপি কোচবিহার জেলা সভানেত্রী মালতি রাভা। এই অভিযোগপত্রে পঙ্কজ ঘোষ সহ তুফানগঞ্জ তৃণমূল বিধায়ক ফজল করিম মিয়া,  তৃণমূল নেতা খোকন মিয়া, নুর আলম হোসেন, মীর হুমায়ুন কবির এর পাশাপাশি ১৫ জনের নামে অভিযোগ জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

See More

Latest Photos